আইপিএলের অন্যতম ধারাবাহিক দল চেন্নাই সুপার কিংস (সিএসকে)। কিন্তু ২০২০ সালে তারা প্রত্যাশা অনুযায়ী খেলতে পারেনি। তিন বারের চ্যাম্পিয়ন দল এই প্রথমবার প্লে অফের যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি। আসন্ন মরসুমের আগে তাই ঘর গোছাতে ব্যস্ত সিএসকে। এবার তরুণ খেলোয়াড়দের দলে অন্তর্ভুক্ত করতে বিশেষ জোর দেওয়া হচ্ছে। তাই কেদার যাদব সহ বেশ কিছু খেলোয়াড়কে রিলিজ করে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

২০১৮ সালের আইপিএল নিলামে ৭.৮ কোটি টাকার বিনিয়মে কেদার যাদবকে ক্রয় করেছিল সিএসকে। তিন বছর তিনি সিএসকেতে ছিলেন। যদিও অনেকে এমএস ধোনির দলে তার স্থান নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন। বিশেষত ২০২০ সালে সংযুক্ত আরব আমিরশাহীতে সিএসকের শোচনীয় পারফরমেন্সের পর এই প্রশ্ন আরও জোরদার হয়েছে। এবারের টুর্নামেন্টে তিনি প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারেননি।

সিএসকে ম্যানেজমেন্ট ঘনিষ্ঠ এক সূত্রের মতে, ৩৫ বছর বয়সী কেদার যাদবের বদলে তরুণ খেলোয়াড়দের দলে শামিল করতে বেশি আগ্রহী সিএসকে। ওই সূত্র জানায়, আইপিএল ২০২০-তে কেদার যাদব তার ক্ষমতা অনুযায়ী খেলতে পারেননি। তার ফিটনেসও ভালো ছিল না। ২০২১ আইপিএলে কেদার যাদবকে ছাড়াই মাঠে নামবে সিএসকে। টিম ম্যানেজমেন্টের সবাই মনে করছেন যে, ভবিষ্যতের দিকে তাকিয়ে এবার কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

এই সিদ্ধান্ত যে অমূলক নয়, পরিসংখ্যান থেকেই তা স্পষ্ট হয়। আইপিএল ২০২০-তে আটটি ম্যাচ থেকে ৯৩.৩৩ স্ট্রাইক রেটে তিনি মাত্র ৬২ রান করেছেন। ফিটনেস নিয়েও যাদব দীর্ঘদিন ধরে সমস্যায় ভুগছেন।

২০ জানুয়ারির মধ্যে খেলোয়াড়দের রিলিজ করতে হবে

আইপিএল ২০২১-এর প্রস্তুতি শুরু হয়ে গিয়েছে। সম্প্রতি বৈঠকে বসেছিল গভর্নিং কাউন্সিল। সেখানে সিদ্ধান্ত হয়েছে যে, ২০ জানুয়ারির মধ্যে খেলোয়াড়দের রিলিজ করে দিতে হবে। ২০২১ আইপিএলের আগে মিনি অকশন সম্ভবত আগামী  ১১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here